লোকসভার স্পিকারের উপর সবচেয়ে সহজ ও সেরা নোট

qualification-rank-powers-and-functions-of-the-speaker-of-the-lok-sabha


লোকসভার স্পিকার হওয়ার যোগ্যতা বা শর্ত ; 


১) লোকসভার স্পিকার হতে গেলে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে, 
২) লোকসভার স্পিকার হতে হলে অন্ততপক্ষে তাঁকে ২৫ বছর বয়স্ক হতে হবে,
৩) কেন্দ্রীয় বা রাজ্য সরকারের কোনো লাভজনক পদে থাকা চলবে না, 
৪) সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ হতে হবে,
৫) দুই বছরের বেশি কারাদণ্ড ভোগ করেছেন এমন কোনো ব্যক্তি লোকসভার স্পিকার হতে পারবেন না।।


লোকসভার স্পিকারের পদমর্যাদা,নির্বাচন, এবং কার্যকালের মেয়াদ সম্পর্কিত তথ্য  ;

ভারতে লোকসভার সভাপতিকে অধ্যক্ষ বা স্পিকার বলে অভিহিত করা হয়। ভারতের স্পিকারের পদমর্যাদা সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতির সমতুল্য বলে অনেকে অভিমত প্রকাশ করেন। 

▪ সংবিধানের ৯৩ নং ধারানুযায়ী, প্রথম অধিবেশনে লোকসভার সদস্যগণ নিজেদের মধ্য থেকে একজনকে স্পিকার পদে পদে নির্বাচিত করেন। 

▪ লোকসভার স্পিকারের কার্যকালের মেয়াদ ৫ বছর।

▪ লোকসভায় যে দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে সেই দলই স্পিকার মনোনীত করে।

▪ লোকসভার সদস্য হতে গেলে যেসব যােগ্যতা থাকা প্রয়ােজন, স্পিকার হতে গেলেও সেই একই যোগ্যতা থাকা দরকার।

লোকসভার স্পিকারের ক্ষমতা ও কার্যাবলী ;

লোকসভার স্পিকার যে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করে থাকেন,তাহলো-

১) পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের যৌথ অধিবেশনে লোকসভার স্পিকার সভাপতিত্ব করেন।

২) কোনাে বিল অর্থ বিল কি না সেই বিষয়ে স্পিকার রায় দেন।।

৩) আইন সভার এলাকার মধ্যে কোনাে সদস্যকে গ্রেপ্তার করতে হলে স্পিকারের অনুমতি নিতে হয়।

৪) লোকসভার স্পিকারই রাষ্ট্রপতি ও লোকসভার মধ্যে যােগসূত্র রাখেন।

৫) আইনসভায় নির্ণায়ক ভােট বা Casting Vote প্রদান করার ক্ষমতা রয়েছে স্পিকারের হাতে।

৬) লোকসভার কোনাে সদস্য পদত্যাগ করলে সেই পদত্যাগপত্রটি স্পিকারের হাতে জমা দিতে হয়। 

☆ লোকসভার স্পিকার সম্পর্কিত কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর ;

১) স্বাধীন ভারতের প্রথম লোকসভার স্পিকার ছিলেন গণেশ বাসুদেব মাভালাঙ্কর।

২) লোকসভার দ্বিতীয় স্পিকার ছিলেন এম.এ. আয়াঙ্গার।

৩) লোকসভার প্রথম মহিলা স্পিকার ছিলেন মীরা কুমার।